সোমবার, ২২ জানুয়ারি, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |
সর্বশেষ সংবাদ
সিলেটে সুরমায় বাস-ট্রাক সংঘর্ষে ৩ জন নিহত  » «   সিলেট থেকেই নির্বাচনের প্রচার শুরু করবেন হাসিনা  » «   টার্নিং পয়েন্ট খালেদার মামলা  » «   এবার সৌদি-ইসরাইল রেললাইন নির্মাণের পরিকল্পনা চূড়ান্ত  » «   ভারতীয় স্কুলগুলোতে কোরআন শিক্ষার তাগিদ দিলেন মানেকা গান্ধী  » «   প্রত্যাশিত দেশ গড়তে চাই কাঙ্খিত নেতৃত্ব : শিবির সেক্রেটারি  » «   ঢাবি সিনেটে বিএনপিপন্থীদের ভরাডুবির কারন ফাঁস !  » «   সিলেটের আবাসিক হোটেল থেকে তরুণ-তরুণীর লাশ উদ্ধার  » «   ফ্রান্সে প্রথম বাংলাদেশি কাউন্সিলর শারমিন  » «   কবে, কে হচ্ছেন ২২তম প্রধান বিচারপতি?  » «   যে ছবি নিয়ে বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কে বিতর্কের ঝড়  » «   শিক্ষামন্ত্রণালয়ের ‘নিখোঁজ’ দুই কর্মকর্তাসহ তিনজন গ্রেফতার  » «   এবার হজে যেতে পারবেন ১ লাখ ২৭ হাজার বাংলাদেশি  » «   এমপিপুত্রের শেষ স্ট্যাটাস ‘তোর জন্য চিঠির দিন..’  » «   নেতানিয়াহুর গ্রেফতার দাবিতে ইসরাইলে লাখো জনতার বিক্ষোভ  » «  

চীনা যুদ্ধবিমানে নতুন মিসাইলে ধ্বংস হতে পারে পুরো মার্কিন বিমান বহর

191403_135আকাশে যুদ্ধের জন্যে ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা-নিরীক্ষা দ্রুত এগিয়ে চলেছে চীন। আকাশ থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য অত্যন্ত দূরপাল্লার এই ক্ষেপণাস্ত্র হামলার মুখে আমেরিকার শক্তিশালী বিমান বহর কার্যত অচল হয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

গত কয়েক বছর ধরে চীন ও আমেরিকার মধ্যে উত্তেজনা এক নাগাড়ে বেড়েই চলেছিল। তবে, ডোনাল্ড ট্রাম্প মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর তা আরও তুঙ্গে ওঠে। কয়েক দশকের মার্কিন প্রথা ভেঙে তাইওয়ানের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে ফোনালাপ করে এই উত্তেজনাকে তুঙ্গে নিয়ে যান ট্রাম্প।
আইএইচএস জেন্স এবং চিনা সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত আলোকচিত্রে দেখা গেছে, দেশটির জে-১১ এবং জে-১৬ যুদ্ধবিমান একটি ক্ষেপণাস্ত্র বহন করছে। কিন্তু এখনো এর নামকরণ করা হয়নি। তবে চীনা বিমান গবেষক ফু কিয়ানশাও দেশটির সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, এর পাল্লা ২৫০ মাইল বা ৪০২ কিলোমিটার।

বর্তমানে আকাশযুদ্ধের উপযোগী চীন এবং আমেরিকার যেসব ক্ষেপণাস্ত্র আছে তার চেয়ে এর পাল্লা কয়েকগুণ বেশি। ফু কিয়ানশাও বলেছেন, এতে আড়াল থেকে শত্রুর ‘চোখে’ আঘাত করতে পারবে চীনা যুদ্ধবিমান। এখানে ‘চোখ’ বলতে মার্কিন উড়ন্ত রাডার ব্যবস্থা সংবলিত আওয়াক্স বিমানের প্রতি ইঙ্গিত করা হয়েছে। আওয়াক্সের সহায়তায় শত্রু বিমানের গতিবিধির ওপর নজর রাখতে পারে মার্কিন বিমান বাহিনী। এই ‘চোখ’ অচল হয়ে গেলে মার্কিন বিমান বাহিনী কঠিন অসুবিধায় পড়বে।

এছাড়া, আকাশে জ্বালানি ভরার কাজে ব্যবহৃত ট্যাংকার বিমানও এই ক্ষেপণাস্ত্রের হাত থেকে রক্ষা পাবে না। এসব বিমান আকাশে জ্বালানি সহায়তা দিতে না পারলে অত্যাধুনিক বিমান এফ-৩৫সহ অন্যান্য বিমান দূরপাল্লার পথ পাড়ি দিতে পারবে না। ফলে লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানার সক্ষমতা হারাবে এসব অত্যাধুনিক বিমান। সব মিলিয়ে মার্কিন যুদ্ধবিমানের জন্য আকাশ-সহায়তা অকার্যকর করে তুলতে পারবে চীনের নতুন ক্ষেপণাস্ত্র। এতে গোটা মার্কিন বিমান বাহিনীই কার্যত অচল হয়ে পড়ার আশঙ্কায় পড়েছে।

নয়া দিগন্ত

সংবাদটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ সংবাদ