মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ ফাল্গুন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বস্তরে বাংলা ভাষা চালু করতে হবে : শিবির সভাপতি  » «   খালেদার বক্তব্য বিকৃত করে রায় দিয়েছেন আখতারুজ্জামান!  » «   একজন ভাষাসৈনিক গোলাম আজম এবং আমার ভাবনা  » «   আগামী বছর নতুন পদ্ধতিতে এসএসসি  » «   ধনীদের আরো বেশি কর দেয়া উচিত: বিল গেটস  » «   খালেদা ভোটের যোগ্যতা হারালে কিছু করার নেই: কাদের  » «   তারেকের স্ত্রী, কন্যার ব্রিটিশ নাগরিকত্বের আবেদনের খবর  » «   খালেদার জামিন আবেদনের আগেই কপি চান অ্যাটর্নি জেনারেল  » «   ব্যাংকে জালিয়াতির কোনো ঘটনায় ছাড় দেয়া হয়নি: তোফায়েল  » «   বাংলাদেশকে কেউ আর অবহেলার সাহস পায় না: প্রধানমন্ত্রী  » «   বাসের ধাক্কায় ৪ অটোযাত্রী নিহত  » «   ২১ গুণীজনকে একুশে পদক দিলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   ভারতের দুর্ভাগ্য যে বিজেপি কেন্দ্রীয় সরকারে ক্ষমতায় আছে: মমতা  » «   খালেদা জিয়ার আপিল গ্রহণের শুনানি বৃহস্পতিবার  » «   দিল্লির দৃষ্টিতে খালেদা জিয়ার দণ্ড ও ঢাকার রাজনীতি  » «  

‘ইসলামে এমন কিছু প্রশ্নের উত্তর পেয়েছি যা আমি খ্রিস্টান ধর্মে পাইনি’

183595_1আরটিএনএন
ওয়াশিংটন: প্রয়াত পপ সঙ্গীত তারকা মাইকেল জ্যাকসনের ভাই জার্মেইন জ্যাকসন কেন খ্রিস্ট ধর্ম থেকে ইসলাম গ্রহণ করেছেন সে বিষয়ে মুখ খুলেছেন।

সাম্প্রতি বিবিসিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে জার্মেইন জানান, তিনি ১৯৮৯ সালে তার বোনের সঙ্গে মধ্যপ্রাচ্যের কয়েকটি দেশ সফরে যান। সেখানে তাদের কয়েকজন শিশুর সঙ্গে সাক্ষাৎ হয়; যারা তাদের খুবই আন্তরিকতার সঙ্গে সেখানে স্বাগত জানিয়েছিলেন।

জার্মেইন জানান, ওই শিশুদের সঙ্গে আলাপচারিতার সময় তিনি ওই শিশুদের মধ্যে দৃঢ় মনোভাব উপলদ্ধি করতে পারেন। মুসলমান হিসেবে ওই শিশুরা যে অত্যন্ত গর্বিত তা তিনি খুব দ্রুতই বুঝতে পারেন।

তিনি আরো জানান,শিশুদের এই আস্থা তার মনকে সত্যি সত্যি প্রচণ্ড নাড়া দেয়।

জার্মেইন বলেন, ‘তারপর তারা আমাকে ইসলাম সম্পর্কে আমাকে বলতে শুরু করে। তারা ইসলাম সম্পর্কে আমাকে অনেক তথ্য দেয়। এমন বয়সের শিশুরা ধর্ম সম্পর্কে এত কিছু জানে যা আমাকে অবাক করে দেয়। তাদের কণ্ঠস্বরের মাত্রা এটাই প্রকাশ করে যে, তারা ইসলাম নিয়ে অত্যন্ত গর্বিত। আর এভাবেই শুরু হয় আমার ইসলাম দিকে পথ চলা।’

তিনি বলেন, ‘শিশুদের সঙ্গে খুব অল্প সময়ের পারস্পরিক আলাপচারিতা অবশেষে আমাকে মুসলিম পণ্ডিতদের সঙ্গে ইসলাম সম্পর্কে দীর্ঘ আলাপচারিতার দিকে নিয়ে যায়। একটি চমৎকার স্পন্দন আমার চিন্তায় স্থান করে নেয়।’

জার্মেইন বলেন, ‘আমি নিজেকে সান্ত্বনা দেয়ার ব্যর্থ প্রয়াস চালাই যে, কিছুই ঘটেনি কিন্তু এই সত্যটা আমি কোনোক্রমেই গোপন করতে পারিনি। অবশেষে আমি আমার অন্তর থেকে ইসলামে ধর্মান্তরিত হই। আমার পারিবারিক বন্ধু কোয়ানবির আলীর কাছে প্রথম বিষয়টি প্রকাশ করি।’

একজন মুসলমান হিসেবে তার নিজের অনুভূতি সম্পর্কে জানতে চাইলে জার্মেইন বলেন, ‘ইসলাম গ্রহণের পর আমার কাছে কেবল মনে হয়েছে, আমার পুর্নজন্ম হয়েছে। আমি ইসলামে এমন কিছু প্রশ্নের উত্তর পেয়েছি যা আমি খ্রিস্টান ধর্মে পাইনি।’

তিনি বলেন, ‘বিশেষত, খ্রিস্টের জন্ম সংক্রান্ত প্রশ্নের সন্তোষজনক উত্তর কেবল ইসলামের মধ্যেই রয়েছে। ইসলাম গ্রহণের পর প্রথমবারের জন্য আমি ধর্ম সম্পর্কে সন্তুষ্ট হই। এই বিষয়গুলো যেন আমার পরিবারের সদস্যরা উপলব্ধি করতে পারে তার জন্য আমি আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করি।

তিনি আরো বলেন, ‘আমার পরিবার খ্রিস্ট ধর্মে বিশ্বাসী, যা ‘জেহোভার সাক্ষী’ নামে পরিচিত। এর আকীদা-বিশ্বাস অনুযায়ী, কেবল ১৪৪,০০০ জন পুরুষ পরিশেষে বেহেস্তে প্রবেশ করার যোগ্যতা অর্জন করবে। কিন্তু কিভাবে আসবে? এটা সবসময়ই আমার কাছে একটি জটিল ধর্মমত রয়ে গেছে।’

জার্মেইন বলেন, ‘আমি এটা জেনে বিস্মিত হই যে, অনেক পুরুষদের লেখা একত্র করে বাইবেল প্রণীত হয়েছে। এর মধ্যে একটি ভলিউমের লেখক হচ্ছেন রাজা জেমস। একজন মানুষ একটি গ্রন্থ প্রনয়ণ করে তারপর সেটি ঈশ্বরের গ্রন্থ বলে চালিয়ে দিতে পারে কিনা তা আমার কাছে বিস্ময়ের উদ্রেক করে। কিন্তু তিনি নিজেও (রাজা জেমস) বাইবেলের দিক নির্দেশনা পুরোপুরি মেনে চলছেন না।’

তিনি বলেন, ‘আমার সৌদি আরবে থাকার সময়, তদানীন্তন প্রাক্তন ব্রিটিশ পপ-গায়ক এবং বর্তমান মুসলিম প্রচারক ইউসুফ ইসলামের (পূর্ব নাম ক্যাট স্টিভেন্স) একটি অডিও রেকর্ড কেনার সৌভাগ্য হয়েছিল। আমি ওই অডিও থেকে ইসলাম সম্পর্কে অনেক ভাল কিছু শিখতে পেরেছি।’

সংবাদটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ সংবাদ