বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |
সর্বশেষ সংবাদ
বিচারকদের শৃঙ্খলাবিধির গেজেট ঃ বিচারকদের ওপর মাতাব্বরি করবেন আইনমন্ত্রী : ব্যারিস্টার মইনুল  » «   প্রবাসীর স্ত্রীর ঘরে অবাধে আসা-যাওয়া, তারপর যা ঘটল  » «   মাদক নিয়ে বিরোধে প্রবাসী দুই ভাই খুন: পুলিশ  » «   আগামী নির্বাচনে আমরা জয়লাভ করব: প্রধানমন্ত্রী  » «   অমানবিক: স্বামীকে খুন, সার্জারি করে প্রেমিককে স্বামীর চেহারা দিলেন স্ত্রী!  » «   সোনালী ব্যাংকের নামফলকে এখনো ‘ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক অব পাকিস্তান’  » «   নারীদের মাঠে যেতে মানা করায় ইমামসহ তিনজন রিমান্ডে  » «   জেরুজালেম প্রশ্নে ওআইসি চুপ থাকতে পারে না: প্রেসিডেন্ট  » «   আওয়ামী লীগ ত্যাগ করলেন ২৬৯ জন  » «   নিরাপদ পৃথিবীর জন্য সম্মিলিত প্রচেষ্টা চান প্রধানমন্ত্রী  » «   জেরুজালেমকে রাজধানী পাওয়ার অধিকার কেবল ফিলিস্তিনিদের: সৌদি  » «   ‘আকায়েদ বাংলাদেশি নামের কলঙ্ক’  » «   জেরুজালেমকে ফিলিস্তিনের রাজধানী ঘোষণা করবে ওআইসি  » «   অভিশপ্ত চেয়ার: বসলেই মৃত্যু নিশ্চিত  » «   আমেরিকায় গিয়ে জঙ্গি হয়েছে আকায়েদ: পুলিশ  » «  

রাস্তায় প্রস্রাব করে বিপাকে মন্ত্রী!

ppফের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির স্বচ্ছ ভারত অভিযানকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে রাস্তায় মূত্রত্যাগ করলেন এক মন্ত্রী। গত জুনে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাধামোহন সিংহের পর এবার মহারাষ্ট্রের জল সংরক্ষণমন্ত্রী রাম শিনডেও সমালোচিত হলেন একই কাণ্ড ঘটানোয়।

মহারাষ্ট্রের মাঠে মন্ত্রী রাম শিনডের মূত্রত্যাগের ভিডিও ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়ে যাওয়ার পর সমালোচকেরা বলছেন, মোদির স্বচ্ছ ভারত অভিযান ব্যর্থ হয়েছে।

এসব সমালোচনার জবাবে প্রতিক্রিয়ায় রাম শিনডে জানান, অসুস্থ অনুভব করায় প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে তিনি বাধ্য হয়েছিলেন এবং ওখানে কোথাও শৌচাগার খুঁজে পাননি তিনি।

গত শনিবার মহারাষ্ট্রের দক্ষিণ–পশ্চিমাঞ্চলের সোলাপুরে এ ঘটনা ঘটে। নিজের গাড়িতে চড়ে সেখান দিয়ে যাওয়ার সময় রাস্তার ধারে মূত্রত্যাগ করেন মন্ত্রী। সমালোচনার মুখে তিনি আত্মপক্ষ সমর্থন করে বলেছেন, ‘সেচ প্রকল্পের কাজ খতিয়ে দেখার জন্য এক মাস ধরে আমাকে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে হচ্ছে। প্রচণ্ড গরম ও ধুলোর মধ্যে ক্রমাগত ঘুরে বেড়ানোর ফলে আমি অসুস্থ হয়ে পড়ি। জ্বরেও ভুগছিলাম। যাওয়ার সময় রাস্তার ধারে কোথাও শৌচাগার না পেয়ে প্রকাশ্যেই মূত্রত্যাগ করতে বাধ্য হই।’

মন্ত্রীর এই কাণ্ডের পর প্রশ্ন উঠেছে, প্রধানমন্ত্রী কীভাবে আশা করেন সাধারণ মানুষ শৃঙ্খলা মেনে চলবে, যেখানে তাঁর সভাসদেরাই উচ্ছৃঙ্খল। ২০১৪ সালে স্বচ্ছ ভারত অভিযান শুরু করেন মোদি। তিনি দেশব্যাপী লাখ লাখ শোচাগার তৈরির প্রতিশ্রুতি দেন। সমালোচকেরা বলছেন, এই অভিযানের প্রভাব ভারতের বেশির ভাগ জায়গায় খুব সামান্যই পড়েছে।

গত রোববার বিশ্ব শৌচাগার দিবস উপলক্ষে ওয়াটার এইডের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারতের ৭০ কোটির বেশি মানুষ রাস্তায় মূত্রত্যাগ করে এবং অস্বাস্থ্যকর শৌচাগার ব্যবহার করে।

সুত্রঃ প্রথম আলো।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ সংবাদ