বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |
সর্বশেষ সংবাদ
বিচারকদের শৃঙ্খলাবিধির গেজেট ঃ বিচারকদের ওপর মাতাব্বরি করবেন আইনমন্ত্রী : ব্যারিস্টার মইনুল  » «   প্রবাসীর স্ত্রীর ঘরে অবাধে আসা-যাওয়া, তারপর যা ঘটল  » «   মাদক নিয়ে বিরোধে প্রবাসী দুই ভাই খুন: পুলিশ  » «   আগামী নির্বাচনে আমরা জয়লাভ করব: প্রধানমন্ত্রী  » «   অমানবিক: স্বামীকে খুন, সার্জারি করে প্রেমিককে স্বামীর চেহারা দিলেন স্ত্রী!  » «   সোনালী ব্যাংকের নামফলকে এখনো ‘ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক অব পাকিস্তান’  » «   নারীদের মাঠে যেতে মানা করায় ইমামসহ তিনজন রিমান্ডে  » «   জেরুজালেম প্রশ্নে ওআইসি চুপ থাকতে পারে না: প্রেসিডেন্ট  » «   আওয়ামী লীগ ত্যাগ করলেন ২৬৯ জন  » «   নিরাপদ পৃথিবীর জন্য সম্মিলিত প্রচেষ্টা চান প্রধানমন্ত্রী  » «   জেরুজালেমকে রাজধানী পাওয়ার অধিকার কেবল ফিলিস্তিনিদের: সৌদি  » «   ‘আকায়েদ বাংলাদেশি নামের কলঙ্ক’  » «   জেরুজালেমকে ফিলিস্তিনের রাজধানী ঘোষণা করবে ওআইসি  » «   অভিশপ্ত চেয়ার: বসলেই মৃত্যু নিশ্চিত  » «   আমেরিকায় গিয়ে জঙ্গি হয়েছে আকায়েদ: পুলিশ  » «  

উকুনের জ্বালা থেকে শিশুকে বাঁচানোর উপায়

uknপ্রতিটি পরিবারেই উকুন নিয়ে আতঙ্ক আছে।   সেই পরিবারে যদি কোনো স্কুলপড়ুয়া শিশু থাকে তাহলে কথাই নেই।
যার চুলের মাধ্যমে ‘চালান’ হয়ে সহপাঠীদের মাথায় খুব সহজেই ভরে যায় এই চলমান আতঙ্ক। যা পরে পাকা আস্তানা হতে পারে বাবা-মা বা সেই বাড়ির অন্যদের মাথাতেও।

আদতে উকুন তেমন ক্ষতিকারক না হলেও নিয়মিত মাথা চুলকানি ক্রমাগত অস্বস্তিতে রাখে বড়দের পাশাপাশি পরিবারের ছোট সদস্যদেরও। তাই ছোটদের অনবরত মাথা চুলকানো নিশ্চিত করে দেয় আপনার পরিবারে এই বিরক্তিকর অনাহূত অতিথির আগমন। মূলত স্কুল, খেলার মাঠ বা দীর্ঘ সময় যেখানে পাশাপাশি থাকতে হয় সেখান থেকে তারা এই পোকাটিকে বয়ে আনে। দ্রুত এক মাথা থেকে আর এক মাথায় সংক্রমিত হয়।

এবার চাই এর থেকে নিষ্কৃতি, যা মোটেই সহজ নয়। প্রথমত, বাজারচলতি শ্যাম্পুতে ব্যবহৃত রাসায়নিক আপনার শিশু সন্তানের জন্য একটু বেশিই ক্ষতিকারক। বারবার শ্যাম্পু কিনলে খরচটা নেহাত কম হয় না।
দ্বিতীয়ত, একাধিকবার শ্যাম্পুর প্রয়োগের পাশাপাশি প্রয়োজন উকুন বাছার জন্যে ঘন দাড়াবিশিষ্ট বিশেষ চিরুণির, যা ব্যবহারে নারাজ পরিবারের ছোট সদস্যটি। কারণ এটির প্রয়োগ মাথায় আরামের বদলে কচিকাঁচাদের বিরক্তি বাড়ায়। তবে উকুন থেকে মুক্তি পেতে আপনাকে বেশ খানিকটা ধৈর্য ধরতে হবে।

কী কী প্রয়োজন:

একটি উকুন বাছার চিরুণি
মাউথওয়াশ
হোয়াইট ওয়াইন ভিনিগার
একটি প্লাস্টিকের ব্যাগ বা শাওয়ার ক্যাপ
তোয়ালে

কী করবেন:

প্রথমে মাউথওয়াশ দিয়ে চুল ভিজিয়ে নিন। এরপর চুলের গোছা প্লাস্টিক বা শাওয়ার ক্যাপে মুড়িয়ে নিন।
এভাবে এক ঘণ্টা রাখতে হবে। এতে আপনার মতো অধৈর্য হয়ে পড়বে উকুনগুলো। মাউথওয়াশের গন্ধে ওরা একেবারে নাজেহাল হবে।
এরপর চুলটা ধুয়ে নিন। প্রাথমিক কাজ শেষ। চুল যখন ভেজা অবস্থায় তখন তাতে হোয়াইট ওয়াইন ভিনিগার দিন। এতে উকুনের ডিমের বারোটা বাজবে। এভাবে অবশ্য আরও একটা ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হবে।

এই পর্যন্ত কাজ অনেকটাই হয়ে গেল। এবার যে শ্যাম্পু ব্যবহার করেন তা দিয়ে চুলটা ধুয়ে ফেলুন। উকুন বাছার চিরুণি দিয়ে মাথা আঁচরান।
এরপরও কোনোভাবে আপনার বাচ্চা উকুন ‘বয়ে’ আনলে স্কুলে যাওয়ার আগে একবার মাউথওয়াশ স্প্রে করে দিন। তাতে ওদের মেজাজটাও ফুরফুরে থাকবে। উকুন মাথায় বাসা বাঁধার আর সাহসও পাবে না।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ সংবাদ