বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |
সর্বশেষ সংবাদ
বিচারকদের শৃঙ্খলাবিধির গেজেট ঃ বিচারকদের ওপর মাতাব্বরি করবেন আইনমন্ত্রী : ব্যারিস্টার মইনুল  » «   প্রবাসীর স্ত্রীর ঘরে অবাধে আসা-যাওয়া, তারপর যা ঘটল  » «   মাদক নিয়ে বিরোধে প্রবাসী দুই ভাই খুন: পুলিশ  » «   আগামী নির্বাচনে আমরা জয়লাভ করব: প্রধানমন্ত্রী  » «   অমানবিক: স্বামীকে খুন, সার্জারি করে প্রেমিককে স্বামীর চেহারা দিলেন স্ত্রী!  » «   সোনালী ব্যাংকের নামফলকে এখনো ‘ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক অব পাকিস্তান’  » «   নারীদের মাঠে যেতে মানা করায় ইমামসহ তিনজন রিমান্ডে  » «   জেরুজালেম প্রশ্নে ওআইসি চুপ থাকতে পারে না: প্রেসিডেন্ট  » «   আওয়ামী লীগ ত্যাগ করলেন ২৬৯ জন  » «   নিরাপদ পৃথিবীর জন্য সম্মিলিত প্রচেষ্টা চান প্রধানমন্ত্রী  » «   জেরুজালেমকে রাজধানী পাওয়ার অধিকার কেবল ফিলিস্তিনিদের: সৌদি  » «   ‘আকায়েদ বাংলাদেশি নামের কলঙ্ক’  » «   জেরুজালেমকে ফিলিস্তিনের রাজধানী ঘোষণা করবে ওআইসি  » «   অভিশপ্ত চেয়ার: বসলেই মৃত্যু নিশ্চিত  » «   আমেরিকায় গিয়ে জঙ্গি হয়েছে আকায়েদ: পুলিশ  » «  

ব্রেন ক্যানসারের ঝুঁকি ৪০০% বাড়ায় ‘স্মার্টফোন’

f88এমন অনেকেই আছেন, দিনের একচিলতে অবসরেও যাদের স্মার্টফোন ছাড়া চলে না। সারাক্ষণই তারা ঘাড় কাত করে স্মার্টফোনে বুদ হয়ে থাকেন। কথা চলে ননস্টপ। সঙ্গে ভিডিও দেখা, গান শোনা, গেমস খেলা তো আছেই। তাদের উদ্দেশ্যে সতর্কবাণী শুনিয়েছেন ভারতের আইআইটির একজন গবেষক শিক্ষক।

সম্প্রতি ভারতের আলিগড় মুসলিম ইউনিভার্সিটির ‘রেডিয়েশন হ্যাজার্ডস অব সেল ফোনস’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় মুম্বাইয়ের ইন্ডিয়ান ইনিস্টিটিউট অব টেকনোলজির অধ্যাপক গিরিশ কুমার দাবি করেন, ‘স্মার্টফোনের অতিরিক্ত ব্যবহার ব্রেন ক্যানসারের ঝুঁকি ৪০০ ভাগ বাড়িয়ে দেয়।’ যে কারণে টিনএজারদের মধ্যে ব্রেন ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি বলে তিনি উল্লেখ করেন।

এ ধরণের ডিভাইসকে প্রযুক্তির ‘হিডেন ডেঞ্জার’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন আইআইটির ওই বিজ্ঞানী। তাঁর মতে, ‘দিনে আট ঘণ্টার বেশি স্মার্টফোন ব্যবহার করা কখনোই উচিত নয়।’ সম্প্রতি ভারত সরকারের কাছে এ বিষয়ে একটি রিপোর্টও জমা দিয়েছেন আইআইটির ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের এই শিক্ষক।

শুধু ব্রেন ক্যানসারের আশঙ্কাই নয়। স্মার্টফোনের অতিরিক্ত ব্যবহারে পুরুষদের ফার্টিলিটিরও সমস্যা দেখা দেয়। ক্ষতি করে ডিএনএ-র। তাঁর দাবি, ‘সব থেকে বেশি ক্ষতি হয় বাচ্চাদের। সেল ফোন থেকে বেরোনো রেডিয়েশনে শরীরের ভেতরের হাড়গোড় পাতলা হয়ে ভঙ্গুর হয়ে পড়ে। ফোনের এই রেডিয়েশনের হাত থেকে মুক্তি নেই অন্যান্য প্রাণীর, এমনকি গাছেরও।’

মোবাইল ফোনের বাড়বাড়ন্তে স্লিপ ডিজওর্ডার, অ্যালজাইমার্স, পারকিনসন’স ডিজিজের মতো অসুখবিসুখ বাড়বে বলেই তাঁর মত। সূত্র: এই সময়

সংবাদটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ সংবাদ