শুক্রবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |
সর্বশেষ সংবাদ
নারী ধূমপায়ীদের তালিকায় বাংলাদেশ এখন শীর্ষে  » «   এবার বনানী থেকে শিক্ষা কর্মকর্তা নিখোঁজ  » «   মানুষ অবৈধ শাসকগোষ্ঠীর নির্মম শিকলে বন্দী: খালেদা জিয়া  » «   আসামে বাংলাভাষী বিতাড়নের প্রতিবাদে বিক্ষোভ  » «   ইসরাইলী সেনার গুলিতে ১ ফিলিস্তিনী নিহত  » «   তীব্র সমালোচনার মুখে ছবিগুলো সরিয়ে নিলো ভারতীয় দূতাবাস  » «   নারায়ণগঞ্জে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বঙ্গবন্ধু সড়কে হকাররা  » «   আমরা লজ্জা পাচ্ছি, তারা কি পাচ্ছেন একটুও: আসিফ নজরুল  » «   সিলেটে অর্থমন্ত্রীর গাড়ি চাপায় আহত ২০  » «   জিয়ার মাজারের খালেদা জিয়ার শ্রদ্ধা নিবেদন  » «   সিলেট-লন্ডন ফ্লাইট চালু করতে ৪৫০ কোটি টাকার প্রকল্প  » «   মেয়র আইভী সিসিইউতে  » «   সুষ্ঠু নির্বাচন হলে ৮০ ভাগ মানুষ বিএনপিকে ভোট দিবে: মির্জা ফখরুল  » «   মুসলমানদের সঙ্গে প্রতারণা করছে সৌদি আরব: খামেনি  » «   বাবার লাশ নিয়ে এক তরুণের বাড়ি যাওয়ার মর্মান্তিক বর্ণনা  » «  

ইসরাইল-ফিলিস্তিন দ্বন্দ্ব নিরসনে মার্কিন নতুন প্রস্তাবে বিন সালমানের মধ্যস্থতা

187989_1

পূর্ব জেরুজালেম: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাবিত ‘ডীল অব দ্য সেঞ্চুরি’ বা ‘শতাব্দী চুক্তি’ সম্পর্কে প্যালেস্টাইনি নেতৃবৃন্দকে অবগত করা হয়েছে। বাহ্যত, কয়েক দশকের ইসরাইল-ফিলিস্তিন দ্বন্দ্ব নিরসনের লক্ষ্যে সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স বিন সালমানের মাধ্যমে বিষয়টি অবগত করা হয়েছে।

বুধবার ফিলিস্তিনি মুক্তি সংস্থার (পিএলও) একজন কর্মকর্তা এই তথ্য জানান।

টেলিফোনে তুরস্কের রাষ্টীয় সংবাদমাধ্যম ‘আনাদুলো এজেন্সি’কে পিএলও কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য আহমেদ মাজদালানি বলেন, ‘মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উপদেষ্টা ও তার জামাতা জেরাড কুশনার প্রস্তাবিত চুক্তির বিস্তারিত বিষয় সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানকে জানিয়েছেন।’

তিনি জানান, পরে বিন সালমান বিষয়টি প্যালেস্টাইনি কর্মকর্তাদেরকে অবগত করেন। দ্বন্দ্ব নিষ্পত্তির জন্য ২০০২ সালের ‘আরব শান্তি’ উদ্যোগের প্রতি সৌদির অঙ্গীকারের বিষয়টি পুনর্ব্যক্ত করেন তিনি।

সৌদি আরব কর্তৃক প্রস্তাবিত ২০০২ সালের শান্তি উদ্যোগের প্রস্তাবে বলা হয়েছিল যে, সকল আরব রাষ্ট্র কর্তৃক ইসরাইলকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি দেয়া হবে। বিনিময়ে ১৯৬৭ সালের যুদ্ধের পর ফিলিস্তিনের দখল করা সমস্ত অঞ্চল থেকে ইসরাইলিদের প্রত্যাহার করে নিতে হবে।

মাজদালানি জানান, চলতি মাসে পিএলও সেন্ট্রাল কাউন্সিলের বৈঠকের পর এই বিষয়ে ‘চূড়ান্ত পদক্ষেপ’ নেবে ফিলিস্তিনি নেতৃত্ব।

‘ডীল অব দ্য সেঞ্চুরি’ শব্দটির মাধ্যমে মূলত দীর্ঘ দিনের প্যালেস্টাইন-ইসরাইল বিবাদ চূড়ান্তভাবে নিষ্পত্তির লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্রের একটি ‘ব্যাক-চ্যানেল’ পরিকল্পনা।

উচ্চাভিলাষী এই পরিকল্পনায় এই অঞ্চলের বেশ কয়েকটি রাষ্ট্রকে অন্তর্ভুক্ত করা হতে পারে। যাইহোক, এই পরিকল্পনার বিস্তারিত বিবরণ এখনো অস্পষ্ট রয়ে গেছে।

মাজদালানির মতে, এই পরিকল্পনাটি মূলত শিয়া ইরানের বিরুদ্ধে ‘আরব-ইসরাইলি’ জোট।

পশ্চিম তীরে অবৈধ বসতি নির্মাণ বন্ধ করতে ইসরাইলের অস্বীকৃতির কারণে ২০১৪ সালে ফিলিস্তিন ও ইসরাইলের মধ্যকার আলোচনা ভেঙ্গে যায়।

গত ডিসেম্বরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেন। তার এই ঘোষণাকে আরব ও মুসলিম বিশ্বের পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রের অনেক মিত্র দেশও তার এই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেন।

ট্রাম্পের এই ঘোষণাকে কেন্দ্র করে তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান ওআইসির জরুরি বৈঠক ডেকে পূর্ব জেরুজালেমকে প্যালেস্টাইনের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেন।

মুসলিম, খ্রিস্টান, ইহুদি তিন ধর্মের মানুষের কাছেই পবিত্র স্থান জেরুজালেম নিয়ে ফিলিস্তিন-ইসরাইল দ্বন্দ্ব চলছে যুগের পর যুগ। জেরুজালেমকে রাজধানী হিসেবে দাবি করে আসছে ইসরাইল।

অপরদিকে পূর্ব জেরুজালেমকে স্বাধীন ফিলিস্তিনের রাজধানী হিসেবে চান দখলদার ইসরাইলিদের বিরুদ্ধে সংগ্রামরত ফিলিস্তিনিরা।

১৯৪৮ সালের আরব-ইসরাইল যুদ্ধে পশ্চিম জেরুজালেম ইসরাইলের দখলে গেলে আল-আকসা মসজিদসহ অনেকগুলো ধর্মীয় স্থাপনা সম্বলিত পূর্ব জেরুজালেম জর্ডানের দখলে থাকে।

১৯৬৭ সালে আরব-ইসরাইল যুদ্ধে পূর্ব জেরুজালেম দখল করে নেয় ইসরাইল। এরপর থেকে মধ্যপ্রাচ্য সঙ্কট চলছে, যা মেটাতে যুক্তরাষ্ট্রও মধ্যস্ততাকারীর ভূমিকা চালিয়ে আসছে।

সূত্র: ডেইলি সাবাহ

পাঞ্জাবে শিশু ধর্ষণ: মেয়েকে কোলে নিয়ে ব্যতিক্রমী প্রতিবাদ পাক উপস্থাপিকার

187988_1

আরটিএনএন
পাঞ্জাব: পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের সাত বছরের নিখোঁজ শিশু জয়নাবকে ধর্ষণের পর হত্যা করে ময়লার স্তূপে ফেলে রেখে যায় দুর্বৃত্তরা। গত মঙ্গলবার শিশুটির লাশ ময়লার স্তূপ থেকে উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় এক পাক উপস্থাপিকা নিজের মেয়েকে কোলে নিয়ে টিভি পর্দায় এসে ব্যতিক্রমী প্রতিবাদ করেন।

সমা টিভি সূত্রে জানা যায়, পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের কাসুরে সাত বছরের শিশু জয়নাবকে ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় ব্যতিক্রমী প্রতিবাদ প্রকাশ করেন সমা টিভি’র এক উপস্থাপিকা। গত বুধবার পাকিস্তানের সমা টিভি চ্যানেলের উপস্থাপিকা কিরন নাজ সংবাদ পাঠ করার সময় নিজের শিশুকন্যাকে কোলে নিয়ে পর্দায় হাজির হন।

বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়, খবরের মূল বুলেটিন শুরু করার আগে মেয়েকে কোলে নিয়ে ক্যামেরার সামনে তিনি বলেন, ‘আজ আমি কিরণ নাজ নই। আমি একজন মা। তাই এখানে আমার মেয়েকে নিয়ে বসে আছি।’ দেড় মিনিটের ওই বক্তব্যে কিরণ আরও বলেন, এই ঘটনায় আমি বিধ্বস্ত। কেউ যখন বলেন, ছোট্ট কফিনগুলোই সবচেয়ে ভারী হয়, ঠিকই বলেন। গোটা পাকিস্তান ভারাক্রান্ত সেই ছোট্ট মেয়েটির কফিনের ভারে।’

নিখোঁজ হওয়ার এক দিন পর গত মঙ্গলবার একটি আবর্জনার স্তূপ থেকে উদ্ধার করা হয় ছোট্ট জয়নাবের লাশ। শিশুটিকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। এ ঘটনার পর গত বুধবার থেকে বিক্ষোভে ফেটে পড়ে মানুষ। ‘জাস্টিস ফর জয়নাব’ দাবিতে মুখর দেশ।

এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছেন জনপ্রিয় অভিনেতা ও ক্রিকেট তারকারা। অভিনব উপায়ে নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করলেন কিরন নাজও। তিনি বলেন, ‘জয়নাবের মা-বাবা যখন মেয়ের দীর্ঘজীবন চেয়ে সৌদি আরবে প্রার্থনা করছেন, তখন পাকিস্তানে একটা দৈত্য ধর্ষণ করে তার দেহ ছুড়ে ফেলে আবর্জনার স্তূপে। এর চেয়ে ভাগ্যের পরিহাস আর কী হতে পারে! এটা শুধু একটা বাচ্চার ধর্ষণ ও খুন নয়, আমাদের সমাজ, মানবতাই খুন হয়েছে।’

কোরআন শিখতে যাওয়ার পথে নিখোঁজ হয় জয়নাব। তার লাশ পাওয়া যায় বাড়ি থেকে ২০ কিলোমিটার দূরে। জয়নাবের পরিবারের দাবি, মেয়ে নিখোঁজ হওয়ার পরই পুলিশকে জানান তাঁরা। কিন্তু কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। সিসিটিভি ফুটেজ থাকা সত্ত্বেও পুলিশ দোষী ব্যক্তিকে ধরতে পারছে না।

জয়নাবের বাবা মোহাম্মদ আমিন বলেন, ‘জয়নাবকে যখন অপহরণ করা হয়, তখনই যদি পুলিশ কিছু করত, তা হলে হয়তো ওকে মরতে হতো না।’ পুলিশে ওপর আস্থা নেই জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘যাঁরা প্রতিবাদ করছেন, তাঁদের ওপরই গুলি চালাচ্ছে পুলিশ। অথচ অপহরণকারীকে খুঁজে বের করতে পারেনি। মনে হচ্ছে যেন আমার পৃথিবী শেষ হয়ে গেছে।’

ময়নাতদন্তের রিপোর্টে জানা যায়, জয়নাবকে বেশ কয়েকবার ধর্ষণ করা হয়। পরে গলা টিপে হত্যা করা হয়। লাশের চেহারায় নির্যাতনের স্পষ্ট চিহ্ন রয়েছে।

জয়নাবের মায়ের দাবি, ‘বিচার চাই। আর কিছু বলার নেই।’

দেশজুড়ে বিক্ষোভে ইতিমধ্যে নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসন। লাহোর হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি মনসুর আলি শাহ শাহবাজ বিষয়টি নজরে রাখছেন। অপরাধীকে খুঁজতে পুলিশকে সহযোগিতা করতে সামরিক গোয়েন্দাদের নির্দেশ দিয়েছেন সেনাপ্রধান। অপরাধীর খোঁজ দিলে ১ কোটি টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ।

বই পড়তে ও লিখতে ভালোবাসত ছোট্ট জয়নাব। খাতায় তার কচি হাতের লেখা প্রকাশ করেছে একটি পাকিস্তানি চ্যানেল। জয়নাব নিজের পরিচয় দিয়ে সেখানে লিখেছে, ‘আমি আম ভালোবাসি।’

সংবাদটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ সংবাদ