শুক্রবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |
সর্বশেষ সংবাদ
নারী ধূমপায়ীদের তালিকায় বাংলাদেশ এখন শীর্ষে  » «   এবার বনানী থেকে শিক্ষা কর্মকর্তা নিখোঁজ  » «   মানুষ অবৈধ শাসকগোষ্ঠীর নির্মম শিকলে বন্দী: খালেদা জিয়া  » «   আসামে বাংলাভাষী বিতাড়নের প্রতিবাদে বিক্ষোভ  » «   ইসরাইলী সেনার গুলিতে ১ ফিলিস্তিনী নিহত  » «   তীব্র সমালোচনার মুখে ছবিগুলো সরিয়ে নিলো ভারতীয় দূতাবাস  » «   নারায়ণগঞ্জে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বঙ্গবন্ধু সড়কে হকাররা  » «   আমরা লজ্জা পাচ্ছি, তারা কি পাচ্ছেন একটুও: আসিফ নজরুল  » «   সিলেটে অর্থমন্ত্রীর গাড়ি চাপায় আহত ২০  » «   জিয়ার মাজারের খালেদা জিয়ার শ্রদ্ধা নিবেদন  » «   সিলেট-লন্ডন ফ্লাইট চালু করতে ৪৫০ কোটি টাকার প্রকল্প  » «   মেয়র আইভী সিসিইউতে  » «   সুষ্ঠু নির্বাচন হলে ৮০ ভাগ মানুষ বিএনপিকে ভোট দিবে: মির্জা ফখরুল  » «   মুসলমানদের সঙ্গে প্রতারণা করছে সৌদি আরব: খামেনি  » «   বাবার লাশ নিয়ে এক তরুণের বাড়ি যাওয়ার মর্মান্তিক বর্ণনা  » «  

এক নারীর জন্য উপসাগরীয় সংকট!

naএকজন নারীর পাসপোর্ট নবায়নকে কেন্দ্র করেই সাম্প্রতিক সময়ে উপসাগরীয় অঞ্চলের কূটনৈতিক টানাপোড়েন সৃষ্টি হয়েছে। কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ বিন আব্দুল রহমান আল-থানি দেশটির জাতীয় টেলিভিশনকে এ কথা বলেন। খবর আরটির।

তিনি বলেন, “বিরোধী রাজনৈতিকের স্ত্রীকে প্রত্যর্পণ না করায় প্রতিবেশী আরব আমিরাত কাতারের ওপর চড়াও হয়, এবং গণমাধ্যমে আক্রমণাত্মক বক্তব্য দিতে থাকে।”

ওই নারী ও তার স্বামী ২০১৩ সালে আরব আমিরাত ছেড়ে কাতারে চলে আসে। এরপর স্বামী যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমালেও পারিবারিক বন্ধনের কারণে স্ত্রী কাতারে থেকে যায়। কিন্তু তিনি পাসপোর্ট নবায়ন করতে চাইলে কাতারস্থ আমিরাত দূতাবাস তা প্রত্যাখ্যান করে, এবং তার প্রত্যর্পণ দাবি করে।

আল-থানি বলেন, “আবু ধাবির ক্রাউন প্রিন্স শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ ওই নারীর প্রত্যর্পণ দাবি করে কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানির কাছ একটি প্রতিনিধি দল পাঠান।”

তিনি আরও বলেন, “ওই নারী কোনো অপরাধমূলক কাজে জড়িত নয়, ফলে তার প্রত্যর্পণ আন্তর্জাতিক আইন ও কাতারের সংবিধানের পরিপন্থী। এসব বিবেচনায় শেখ তামিম প্রত্যর্পণে অস্বীকৃতি জানান।”

ছয় মাস আগে প্রতিবেশী সংযুক্ত আরব আমিরাত, সৌদি আরব, বাহরাইন, এবং মিশর কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্নসহ জল, স্থল ও আকাশপথে কাতারের বিরুদ্ধে অবরোধ আরোপ করেছিল।

এ ঘটনারও দুই মাস আগে আরব আমিরাত গণমাধ্যম সূত্রে কাতারকে আক্রমণ করা শুরু করেছিল। এ বিষয়ে কাতার ব্যাখ্যা চাইলে আরব আমিরাত জানিয়েছিল, ওই নারীকে প্রত্যর্পণ করলে এ আক্রমণ বন্ধ করা হবে। তখনও প্রত্যর্পণে রাজি হয়নি কাতার।

আরব আমিরাত, এবং সৌদি আরবের তৎকালীন ক্রাউন প্রিন্স মুহাম্মদ বিন নায়েফকে বিষয়ের আদ্যোপান্ত সম্পর্কে অবহিত করার পরেও তারা বিষয়টি মেনে নেয়নি।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ সংবাদ