শুক্রবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |
সর্বশেষ সংবাদ
নারী ধূমপায়ীদের তালিকায় বাংলাদেশ এখন শীর্ষে  » «   এবার বনানী থেকে শিক্ষা কর্মকর্তা নিখোঁজ  » «   মানুষ অবৈধ শাসকগোষ্ঠীর নির্মম শিকলে বন্দী: খালেদা জিয়া  » «   আসামে বাংলাভাষী বিতাড়নের প্রতিবাদে বিক্ষোভ  » «   ইসরাইলী সেনার গুলিতে ১ ফিলিস্তিনী নিহত  » «   তীব্র সমালোচনার মুখে ছবিগুলো সরিয়ে নিলো ভারতীয় দূতাবাস  » «   নারায়ণগঞ্জে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বঙ্গবন্ধু সড়কে হকাররা  » «   আমরা লজ্জা পাচ্ছি, তারা কি পাচ্ছেন একটুও: আসিফ নজরুল  » «   সিলেটে অর্থমন্ত্রীর গাড়ি চাপায় আহত ২০  » «   জিয়ার মাজারের খালেদা জিয়ার শ্রদ্ধা নিবেদন  » «   সিলেট-লন্ডন ফ্লাইট চালু করতে ৪৫০ কোটি টাকার প্রকল্প  » «   মেয়র আইভী সিসিইউতে  » «   সুষ্ঠু নির্বাচন হলে ৮০ ভাগ মানুষ বিএনপিকে ভোট দিবে: মির্জা ফখরুল  » «   মুসলমানদের সঙ্গে প্রতারণা করছে সৌদি আরব: খামেনি  » «   বাবার লাশ নিয়ে এক তরুণের বাড়ি যাওয়ার মর্মান্তিক বর্ণনা  » «  

প্রেম: বন্ধুরা মিলে ধর্ষণ, প্রেমিক গ্রেপ্তার

ynঢাকার আশুলিয়ায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গার্মেন্টকর্মী এক তরুণীর সর্বনাশ করার অভিযোগ উঠেছে।
ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মুহাম্মদ শরীফুল ইসলাম জানান, শনিবার দুপুরে ওই তরুণীকে শারীরিক পরীক্ষা ও চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে। ঘটনায় ওই তরুণীর কথিত প্রেমিক রাসেল মিয়াকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, রাসেল বগুড়ার সাড়িয়াকান্দি থানার কামালপুর গ্রামের আলম মিয়ার ছেলে। মেয়েটি জামগড়া এলাকায় একটি কারখানায় অপারেটর হিসেবে কাজ করে।
পুলিশ কর্মকর্তা শরীফুল বলেন, শুক্রবার রাত আনুমানিক ১০টার দিকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের জিরানী এলাকায় সংজ্ঞাহীন অবস্থায় মেয়েটিকে পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা। পরে পুলিশের সহযোগিতায় তাকে উদ্ধার করে পলাশবাড়ি এলাকায় একটি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়।
পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।
মেয়েটির মা বলেন, রাসেল বিয়ের প্রলোভন দিয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় জামগড়া এলাকায় তার মেয়েকে নিয়ে যায়। পরে রাসেল ও তার বন্ধুরা মিলে তাকে ধর্ষণ করে ফেলে রেখে যায়।
এ ঘটনায় মেয়েটির মা বাদী হয়ে শনিবার আশুলিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ সংবাদ