বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ ফাল্গুন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |
সর্বশেষ সংবাদ
শেখ হাসিনার ‘ফটোজেনিক মেধাবী’ জিনিসটি আসলে কী?  » «   সর্বস্তরে বাংলা ভাষা চালু করতে হবে : শিবির সভাপতি  » «   খালেদার বক্তব্য বিকৃত করে রায় দিয়েছেন আখতারুজ্জামান!  » «   একজন ভাষাসৈনিক গোলাম আজম এবং আমার ভাবনা  » «   আগামী বছর নতুন পদ্ধতিতে এসএসসি  » «   ধনীদের আরো বেশি কর দেয়া উচিত: বিল গেটস  » «   খালেদা ভোটের যোগ্যতা হারালে কিছু করার নেই: কাদের  » «   তারেকের স্ত্রী, কন্যার ব্রিটিশ নাগরিকত্বের আবেদনের খবর  » «   খালেদার জামিন আবেদনের আগেই কপি চান অ্যাটর্নি জেনারেল  » «   ব্যাংকে জালিয়াতির কোনো ঘটনায় ছাড় দেয়া হয়নি: তোফায়েল  » «   বাংলাদেশকে কেউ আর অবহেলার সাহস পায় না: প্রধানমন্ত্রী  » «   বাসের ধাক্কায় ৪ অটোযাত্রী নিহত  » «   ২১ গুণীজনকে একুশে পদক দিলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   ভারতের দুর্ভাগ্য যে বিজেপি কেন্দ্রীয় সরকারে ক্ষমতায় আছে: মমতা  » «   খালেদা জিয়ার আপিল গ্রহণের শুনানি বৃহস্পতিবার  » «  

আসামে বাংলাভাষী বিতাড়নের প্রতিবাদে বিক্ষোভ

1516359217

আসাম রাজ্য থেকে বাংলাভাষী লোকজনকে বিতাড়নের উদ্যোগ নেওয়ার প্রতিবাদে কলকাতার আসাম ভবনের সামনে বিক্ষোভ করেছে ‘আমরা বাঙালি’ সংগঠন।
গতকাল বৃহস্পতিবার সমাবেশে আসামের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনওয়ালের কুশপুত্তলিকা দাহ করে বিক্ষুব্ধ ‘আমরা বাঙালি’র সদস্য ও সমর্থকেরা। তারা স্লোগান তোলে ‘হিন্দু-মুসলিম জানি না, বাঙালি ছাড়া বুঝি না’।
‘আমরা বাঙালি’র সর্বভারতীয় সম্পাদক বকুল চন্দ্র রায় বিক্ষোভ সমাবেশে বলেছেন, ‘আসাম থেকে বাঙালি বিতাড়নের একটা চক্রান্ত চলছে। আসামের বাঙালিদের কার্যত রাষ্ট্রহীন-দেশহীন করার ষড়যন্ত্র চলছে। এটা বাঙালিরা মেনে নেবে না। বলা হচ্ছে, ৩১ ডিসেম্বর প্রকাশিত নাগরিক পঞ্জিতে যাদের নাম ওঠেনি, তাদের নাম পরবর্তী সময়ে না উঠলে তারা দাবি জানাতে পারবে ট্রাইব্যুনালে। আর তারপর বাঙালিদের ঠাঁই হবে ডিটেনশন ক্যাম্পে। এটা মেনে নেওয়া যায় না। তাই এর বিরুদ্ধে আমাদের দেশব্যাপী আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। আমাদের দাবি, আসামের একজন বাঙালিকেও নাগরিকত্বহীন করা যাবে না।’
আমরা বাঙালির কেন্দ্রীয় সহসম্পাদক তারাপদ বিশ্বাস বলেন, ‘এত দিন বাঙালির ভোটে সরকার নির্বাচিত হয়েছে। আজ তারাই বিদেশি হতে চলেছে, এটা মেনে নেওয়া যায় না, যাবে না। তাই আমরা বাঙালি সংগঠন লাগাতার আন্দোলনের ডাক দিয়েছি।’
পশ্চিমবঙ্গের পাশের রাজ্য আসামে সম্প্রতি প্রকাশ করা হয় আসামের রাষ্ট্রীয় নাগরিক পঞ্জির খসড়া। এতে উঠে এসেছে ১ কোটি ৯০ লাখ মানুষের নাম। যদিও আসামে নাগরিক পঞ্জির রাজ্য সমন্বয়ক প্রতীক হাজেলা সুপ্রিম কোর্টে আগেই জানিয়েছিলেন, দুই কোটি নাগরিকের আবেদনপত্রের যাচাই-বাছাই সম্পন্ন করা হয়েছে। ৩৮ লাখ মানুষের নথিপত্রে সামান্য ত্রুটি থাকার কারণে পুনঃপরীক্ষার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।
এই নথি পেশের পর তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে ১ কোটি ৯০ লাখ মানুষের। তাই এই খসড়া প্রকাশের পর তীব্র ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে নওগাঁসহ বরাক উপত্যকার বাঙালিদের মধ্যে। দেখা যায়, বহু বাঙালির নাম ওঠেনি। বাদ পড়ে যাওয়া ব্যক্তিরা অভিযোগ তুলেছেন, বাঙালিদের আসাম থেকে বিতাড়নের পাঁয়তারা চলছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ সংবাদ