বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ ফাল্গুন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |
সর্বশেষ সংবাদ
শেখ হাসিনার ‘ফটোজেনিক মেধাবী’ জিনিসটি আসলে কী?  » «   সর্বস্তরে বাংলা ভাষা চালু করতে হবে : শিবির সভাপতি  » «   খালেদার বক্তব্য বিকৃত করে রায় দিয়েছেন আখতারুজ্জামান!  » «   একজন ভাষাসৈনিক গোলাম আজম এবং আমার ভাবনা  » «   আগামী বছর নতুন পদ্ধতিতে এসএসসি  » «   ধনীদের আরো বেশি কর দেয়া উচিত: বিল গেটস  » «   খালেদা ভোটের যোগ্যতা হারালে কিছু করার নেই: কাদের  » «   তারেকের স্ত্রী, কন্যার ব্রিটিশ নাগরিকত্বের আবেদনের খবর  » «   খালেদার জামিন আবেদনের আগেই কপি চান অ্যাটর্নি জেনারেল  » «   ব্যাংকে জালিয়াতির কোনো ঘটনায় ছাড় দেয়া হয়নি: তোফায়েল  » «   বাংলাদেশকে কেউ আর অবহেলার সাহস পায় না: প্রধানমন্ত্রী  » «   বাসের ধাক্কায় ৪ অটোযাত্রী নিহত  » «   ২১ গুণীজনকে একুশে পদক দিলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   ভারতের দুর্ভাগ্য যে বিজেপি কেন্দ্রীয় সরকারে ক্ষমতায় আছে: মমতা  » «   খালেদা জিয়ার আপিল গ্রহণের শুনানি বৃহস্পতিবার  » «  

দুই কিডনি অচল কলেজছাত্র রহমতকে বাঁচাতে বাবার আকুতি

188494_1রাজশাহী: দরিদ্র কৃষক পিতার তিন সন্তানের মধ্যে কনিষ্ট ছেলে মো. রহমত। তার স্বপ্ন পড়া-লেখা শেষ করে পিতার কষ্টকে লাগব করা। সেই স্বপ্ন নিয়েই ভর্তি হন রাজশাহী কলেজে। বর্তমানে সে ওই কলেজের রাষ্ট্র-বিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের মেধাবী ছাত্র।

কিন্তু আজ তার স্বপ্ন বাস্তবায়নের পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে শারীরিক অসুস্থতা। বর্তমানে তার দুটি কিডনিই অকোজা হয়ে গেছে। সে আজ মৃত্যু পথযাত্রী। সবার অনুগ্রহ বা আর্থিক সহযোগিতায় বাঁচতে পারে রহমতের জীবন।

রহমতের বাবা মো. আশরাফুল জানান, কয়েক মাসে আগে হঠাৎ করে ছেলে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে প্রাথমিক পর্যায়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে চিকিৎসকরা জানান, তার দুটো কিডনিতে সমস্যা হয়েছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য অবিলম্বে ভারতে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন।

পরে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী, তাকে সুচিকিৎসার জন্য ভারতের বেঙ্গালুরোতে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানকার চিকিৎসকেরা জানান যে, তার দুটো কিডনিই অকোজা হয়ে গেছে। তারা রহমতের একটি কিডনি প্রতিস্থাপনের জন্য পরামর্শ দিয়েছেন।

রহমত বর্তমানে রাজধানীর কিডনি ফাউন্ডেশন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন এবং তার কিডনি প্রতিস্থাপনের জন্য প্রায় ২০ লাখ টাকার প্রয়োজন। তার চিকিৎসার জন্য ইতোমধ্যেই দশ লাখ টাকা ব্যয় করা হয়েছে। তাকে সপ্তাতে দুই বার ডায়ালোসিস করাতে হয় এবং এজন্য প্রতি মাসে ৪০ হাজার টাকা করে খরচ হচ্ছে।

ছেলেকে সুস্থ করে তুলতে গিয়ে তাদের সব জমি-জমা সব বিক্রি করে অত্যন্ত নিঃস্ব হয়ে গেছে তাদের পরিবার। বর্তমানে চরম অসহায় অবস্থার মধ্যে দিন যাপন করছে কৃষক পরিবারটি। এই অবস্থায় ছেলের জন্য আর্থিক সাহায্যের জন্য সমাজের বিত্তবান, দানশীল ও হৃদয়বানদের প্রতি সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন রহমতের পিতা মো. আশরাফুল।

সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা: মো. আশরাফুল, ব্যাংক একাউন্ট নম্বর: ৪০৪৩১, ইসলামী ব্যাংক, রাজশাহী শাখা, রাজশাহী। বিকাশ নম্বর: ০১৭৫০-৬০৩৬৭৮, মোবাইল: ০১৭৮৯-৯৯০২৬৫।

যোগাযোগের ঠিকানা: মো. রহমত, পিতা: মো. আশরাফুল, গ্রাম: রামচন্দ্রপুর, ডাকঘর: হাট গোদাগাড়ী, থানা: পবা, রাজশাহী।

নিজস্ব প্রতিনিধি
আরটিএনএন

সংবাদটি শেয়ার করুন:

সর্বশেষ সংবাদ